FriendsDiary.NeT | Friends| Inbox | Chat
Home»Archive»

উষা

উষা

ফজরের নামাজ শেষে বের হয় উষা গাছে পানি দিয়ে ছাদের গেট খুলে দেয় তারপর চা এর কাপ টা নিয়ে ছাদে গিয়ে বসে ও ।

সকালের এই পরিবেশ টা ওর খুব পছন্দের ।
ঠান্ডা বাতাস গাছের পাতাদের ঝিরিঝিরি শব্দ পাখির ডাক ,
কয়েকটা ঘুঘু পাখির ছাদে এসে কি যেন খুটাখুটি করা এসব ই ওর ভাল লাগে ।
প্রতিদিন মনে হয় নতুন করে দেখছে ।
ছোট এই এক তলার বাড়িতে এসেছে ও এক বছর হলো সবে ।
চোখের পলকে কিভাবে এত গুলো দিন পেরিয়ে গেল ভেবে পায় না ও ।

এ বাড়ির লোক সংখ্যাও কম হলেও ভালবাসার কোনো অভাব নেই ।
এত বেশি পেয়ে ও নিজেই অসহ্য হয়ে উঠে ।
এখোনো মানাতে পারে নি নিজে কে আর এটা এ বাড়ির সকলেই বুঝে ।
তবে কেউ কিছুই বলে না ।

ও জানে এখানে বসে পুরোটা সকাল পার করলেও কেউ কিছুই বলবে না বরং ছাদে এসে নাস্তা টা দিয়ে যাবে অথবা এসে ডেকে যাবে ।
ও ভাবে ওর ভাগ্য এত ভাল কিভাবে হলো ,এখানেও ও নিজের বাড়ীর মতো আছে ।
পাঠক রা এতদুর পড়ে ভাববে যে ওকে হয়তো বাবা মা ধরে বেধে বিয়ে দিয়েছে এখানে কিন্তু তা নয় ।
এ বাড়ীর ছেলে টার সঙ্গে ওর সম্পর্ক ছিল । তবুও বিয়ে টা জোড় করেই দেয়া ।
ও তখন রাজি ছিল না ।

অবাক হয় ও কতজন ভালবাসার মানুষ কে পায় না আর ওকে জোড় করেই ওর প্রেমিকের সাথে বিয়ে দেয়া হয়েছে ,কি হাস্যকর !.
পৃথিবীর সব হাস্যকর ঘটনা গুলো শুধু যেন ওর সাথেই ঘটে ।

সাদ এসে অফিসে যাওয়ার জন্য বিদায় নিয়ে গেল ।
ও এমনটাই করে , উঠে নিজেই বিছানা গুছিয়ে গোসল করে রেডি হয়ে ওর কাছ থেকে বিদায় নিয়ে বের হবে ।
ভাগ্য কতটা ভাল হলে ওর মতো স্বামী পাওয়া যায় ভাবে ও ।
সাদ ওর খেয়াল খুব ভাল মতোই রাখে , আজ অবদি কোনো প্রয়োজনের কথা বলতে হয় নি ওকে ,আগে আগেই সব এনে রাখে ।
শাশুরী তো নিজের মেয়ের মতোই ওকে ভালবাসে ।
এতো কিছুর পরেও কোথায় যেন আটকে থাকে ও ।
ওদের পরিচয় ছিল অনেক আগে থেকেই তারপর কিভাবে কিভাবে ভালবাসাবাসি ও হয়ে গেল ।
মোটেও সিরিয়াস ছিল না উষা ও ভাবতো সাদ ও বুঝি এমন । পরে ওর ধারনা ভুল প্রমাণিত করে সাদ পাগলের মতো ভালবাসতে থাকে ওকে ।
আর এর সুযোগ ও খুব ভাল মত নেয় , কিছু হলেই উল্টাপাল্টা কিছু করে সাদ কে জালাতো ও ।
যে কয়বার ই ওদের দেখা হয়েছে দুবার বাদে প্রত্যেক বার সাদ কিছু না বলে ছুটে ছুটে এসেছে এতদুর থেকে ।

উষা যোগাযোগ বন্ধ রাখলেই এটা করে ও ।
শেষ বার তো এমন হলো যে সোজা বাড়ীতে এসে পড়লো ।
সেদিন উষা ওর সামনে যায়নি ।
ওর বাবা মা সাদ কে বেশ পছন্দ করল । এরপর ওর রিলেটিভস্ নিয়ে আসা , বিয়ের কথা ফাইনাল হওয়া ওর অমতে শেষে বিয়ে টাও হয়ে যায় ।
তারপর ওর পাগলামি আরো বেড়ে যায় ।
না সাদ মোটেও বিরক্ত হয় নি ।
এই পাগলামিতেই অভ্যস্ত এখন ও ।

*




1 Comments 143 Views
Comment

© FriendsDiary.NeT 2009- 2019