FriendsDiary.NeT | Friends| Inbox | Chat
Home»Archive»

গর্ভাবস্থায় ইনহেলার গ্রহণ করা কী নিরাপদ?

গর্ভাবস্থায় ইনহেলার গ্রহণ করা কী নিরাপদ?



গর্ভবতী নারীদের অনেকেই অনেক ধরনের উপদেশ দিয়ে থাকেন। কিছু পরামর্শ অক্ষতিকর হয়, আবার কিছু হয় খুবই মারাত্মক ক্ষতিকর। অ্যাজমার সমস্যার ক্ষেত্রে ইনহেলার ব্যবহার করার ক্ষেত্রে এমন কথা প্রচলিত আছে যে এটি ক্ষতিকর। বিভিন্ন গবেষণায় এ ধরনের সম্ভাবনাকে বাতিল করা হয়েছে। গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে, গর্ভাবস্থার সাথে সম্পর্কিত অ্যাজমার তীব্রতা কমাতে এবং ফুসফুসের কাজের উন্নতিতে সাহায্য করে করটিকোস্টেরয়েড থেরাপি। তাই কোন প্রচলিত কথায় বিশ্বাস করে বসে থাকবেন না বরং গর্ভাবস্থায় কোন ঔষধ ব্যবহার শুরু করা বা বন্ধ করার বিষয়ে আপনার চিকিৎসকের সাথে কথা বলে নিশ্চিত হয়ে জেনে নিন।

দিল্লীর ম্যাক্স হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডাঃ কে কে পান্ডে বলেন, গর্ভাবস্থায়ও করটিকোস্টেরয়েড সমৃদ্ধ ইনহেলার ব্যবহার করলে অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। মাতৃগর্ভে থাকাকালীন শিশুর সঠিক বৃদ্ধির জন্য অক্সিজেনের নিয়মিত সরবরাহ থাকা প্রয়োজন, যা মায়ের রক্ত থেকে পায় শিশু। মায়ের ফুসফুসের কাজ সঠিকভাবে হওয়া ছাড়াও গর্ভের শিশু যাতে পর্যাপ্ত অক্সিজেন পায় সেজন্য মায়ের অ্যাজমাকে নিয়ন্ত্রণে রাখা গুরুত্বপূর্ণ। যদি মা পর্যাপ্ত অক্সিজেন না পায় তাহলে সন্তানও পাবে না প্রয়োজনীয় অক্সিজেন।

একজন গর্ভবতী নারী ও একজন গর্ভবতী নন এমন নারী উভয়ের উপরই সমান প্রভাব ফেলে ইনহেলার। গর্ভাবস্থায় অ্যাজমা থেরাপি অব্যাহত রাখার এবং ইনহেলার ব্যবহার অ্যাজমা সৃষ্টিকারী উপাদানগুলোকে নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে। অ্যালার্জি, ধূলা, দূষণকারী পদার্থ এবং সিগারেটের ধোঁয়ার মত অ্যাজমার সমস্যাকে বৃদ্ধি করার উপাদানগুলোকে চিহ্নিত করা, নিয়ন্ত্রণ করা বা প্রতিরোধ করার বিষয়ে আপনার চিকিৎসকের সাথে কথা বলতে পারেন যা গর্ভাবস্থার জটিলতার ঝুঁকি বৃদ্ধি করে। এছাড়াও গর্ভবতী নারীদের অ্যাজমার বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করা বা স্ব-পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণে রাখার ব্যবস্থা করা, চিকিৎসকের নির্দেশনা অনুসরণ করা, সময়মত ঔষধ গ্রহণ করা, চিকিৎসা সহায়তা নেয়ার প্রয়োজনীয় লক্ষণের বিষয়ে জানা এবং ইনহেলারের সঠিক ব্যবহার করার বিষয়ে জ্ঞান থাকা জরুরী। ডা. পান্ডে বলেন, গর্ভবতী নারীদের অ্যালার্জি সৃষ্টিকারী উপাদান যেমন- পশুর লোম, ধূলা, শক্তিশালী সুগন্ধি এবং অন্য দূষণ সৃষ্টিকারী উপাদানের সংস্পর্শ থেকে দূরে থাকা প্রয়োজন। ডাস্ট মাইট থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য বালিশের কভার ও ম্যাট্রেসের জন্য বিশেষ আবরণ ব্যবহার করুন। অনেকবেশি গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে ধূমপান এবং সেকেন্ড হ্যান্ড স্মোক থেকে দূরে থাকা।

*




2 Comments 198 Views
Comment

© FriendsDiary.NeT 2009- 2019