FriendsDiary.NeT | Friends| Inbox | Chat
Home»Archive»

All about AIDS

All about AIDS

*

#AIDS দিবসে কয়েকটা জানা-অজানা কথাঃ

© AIDS এর প্রথম নাম ছিল 4H disease (haitian,homosexual,hemophiliac,heroin user) এর পর নাম হয় Gay cancer. এর পরে নাম হয় Gay Related Immuno Deficiency(GRID)। এরপর ১৯৮২ সালে WHO এর নাম দেয় AIDS.

© মানুষের রেক্টাল মিউকাসে HIV ভাইরাসের পরিমাণ রক্তের চেয়ে ৫০০ গুণ এবং বীর্যের ২৫০০ গুণ বেশি।

© এইডসের উৎপত্তির তত্ত্বকে Hunter theory বা bush meat theory বলে। বিজ্ঞানীরা ধারণা করেন যে আফ্রিকার উপ সাহারা মরুভূমি এলাকায় বসবাসকারী শিকারি জাতি বুশম্যানদের কেউ শিকারের পর শিম্পাঞ্জির মাংশ কাটার সময় নিজের হাত ভুলে কাটার ফলে সেটার রক্তে অবস্থিত HIV-1 প্রজাতির অন্য এক ভাইরাস বুশম্যানের দেহে ঢুকে যা বিবর্তিত হয়ে মানুষের HIV তে পরিণত হয়।

© লালার মাধ্যমে এইডস ছড়ায় না। পৃথিবীর একমাত্র এক চাইনিজ দম্পতির লালার মাধ্যমে ছড়িয়েছে কথা উঠলেও ডাক্তাররা দেখেন যে মেয়ের মুখে আলসার ছিল যা থেকে হালকা রক্তপাতের মাধ্যমে এই ভাইরাস ছড়িয়েছে।লালা থেকে নয়।

© কোন রোগ প্রথম যার কাছ থেকে ছড়ায় তাকে patient zero বলা হয়। আমেরিকা মহাদেশের পেশেন্ট জিরো হল কানাডিয়ান এক ফ্লাইট এটেন্ডেন্ট- গায়েটান ডুগাস। তার ২৫০০ যৌন সঙিনী ছিল।

© চীন দেশে ২০০৯ সালের আগে পর্যন্ত এইডস কে পুঁজিবাদী রোগ নামে বলা হত যা কেবল পশ্চিমে গেলেই হয় কিন্তু ২০০৯ সালে চীন সরকার দেখেযে তাদের দেশের সর্বাধিক মৃত্যুহারের অন্যতম কারণ এইডস।

© পেটের ইনফ্লামেটরি রোগ ক্রন্স ডিজিজের আবিষ্কারক বার্ণার্ড ক্রনের ভাতিজা স্টিফেন লিয়ন ক্রন পৃথিবীর প্রথম এইডস বিরোধী শারীরিক প্রতিরক্ষা সমৃদ্ধ মানুষ বলে মনে করা হয় কিন্তু পরে দেখা যায় যে কেনিয়ার নাইরোবি তে এক দল গণিকার রক্তে এই প্রতিরক্ষাতন্ত্র উপস্থিত।

© বর্তমানে পৃথিবীর কিছু মানুষের শ্বেত রক্তকণিকার পৃষ্ঠে অবস্থিত CCR5 নামক প্রোটিন জিনের ডেলটা-৩২ নামক বিবর্তন হয়েছে যেটা HIV ভাইরাসের কোষে প্রবেশের সম্পূর্ণ পথ বন্ধ করে দেয়। এই সৌভাগ্যবান মানুষদের ও তাদের বংশে কারো কখনো এইডস হবেনা।

© আধুনিক গবেষণায় দেখা যায় HIV আক্রান্তরা অন্যের চেহারায় ভয়ের ছাপ টা চিহ্নিত করতে পারেনা অর্থাৎ এই ভাইরাস ব্রেনেও একটা ইফেক্ট ফেলছে।

© ১৯৯৩ সালের টম হ্যাংকস অভিনীত হলিউড মুভি "ফিলাডেলফিয়া" এইডস কে ভিত্তি করে বানানো প্রথম সিনেমা।

© AIDS denialism নামক একটা কমিউনিটি আছে যারা এইডসের অস্তিত্ব বিশ্বাস করেনা এমনকি দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার ১৯৯৯ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত এইডস কে একটি পাশ্চাত্ত্য প্রোপাগান্ডা ভাবত।

© রাশিয়ান সিকিউরিটি এজেন্সি KGB একটা ক্যাম্পেইন করে operation INFEKTION নামক যেখানে তারা বলে যে HIV ভাইরাস আমেরিকার ম্যারিল্যান্ড এর ফোর্ট ডেট্রিক এ বায়োলজিক্যাল অস্ত্র গবেষণাগারে তৈরী করা কৃত্রিম ভাইরাস।

© মানব ইতিহাসের সব রোগের ভেতরে সবচেয়ে বেশি গবেষণা করা হয়েছে এইডস নিয়ে।

© মানুষের HIV এর মত অনুরূপ বিড়ালে FIV (Feline Immunodeficiency Virus) আছে। সম্প্রতি ফ্লোরিডার বিজ্ঞানীরা এই বিড়ালের ভাইরাসের ভেক্সিন আবিষ্কার করেছেন।

© WHO বলে, পৃথিবীর বিভিন্ন ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিরা প্রায় ১০০ প্রকার HIV বিরোধী নতুন ওষুধ নিয়ে গবেষণা করছে বর্তমানে।

© জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাক্তাররা বলেছেন বিবাহিতা মেয়েদের ৭৩% এইডস হচ্ছে স্বামীর ব্যবহৃত ডেন্টাল ফ্লস পুনরায় ব্যবহারের কারণে।

© টিমথি রে ব্রাউন কে The Berlin Patient বলা হয়। ইনি একমাত্র লোক যাকে ডাক্তাররা স্টেম সেল ট্রান্সপ্লান্ট ও এন্টি রেট্রোভাইরাল থেরাপির মাধ্যমে সম্পূর্ণ সুস্থ করতে পেরেছেন ২০০৭ সালে।

© HIV ভাইরাস চিনির আবরণে আবৃত থাকে বলে আমাদের দেহ একে পুষ্টি উপাদান ভেবে ভুল করে।

© জনসন আজিগা নামক ছেলে ১৯৯৫ সালে এবং সারাহ পোর্টার নামক মেয়ে ২০০৬ সালে প্রথম দুইজন নরনারী যারা ইচ্ছাপূর্বক এইডস ছড়ানোর দায়ে খুনের মামলা পায়।

© পশ্চিম আফ্রিকাতে বাচ্চা, তরুণী দের ধর্ষণ করে এইডস মুক্ত হয় বলে প্রচলিত আছে তাই প্রতি বছর অনেক নারী আর শিশু ধর্ষিত হয় এখানে। ♠

.....সবশেষে বলব সাবধান থাকবেন, এইডস ক্রমশ বেগবান হচ্ছে.....

Credit goes to -heart- ডাঃ আসির মোসাদ্দেক সাকিব
চমেক ১১-১২

*




1 Comments 127 Views
Comment

© FriendsDiary.NeT 2009- 2020