FriendsDiary.NeT | Friends| Inbox | Chat
Home»Archive»

বাঁচতে হলে জানতে হবে

বাঁচতে হলে জানতে হবে

*

(আমার ফ্রেন্ডলিস্ট এ যদি কোন ডাক্তার থেকে থাকেন তবে আগেই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। আমি কোন ডাক্তার নই, শুধুমাত্র ছোটবেলা থেকে নিজের কিছু অভিজ্ঞতা, দেশের বাইরের কিছু সম্মানিত ডাক্তারের সাজেশন শেয়ার করছি, যেগুলো আমার পার্সনাল লাইফে অনেক হেল্পফুল ছিল। কিছু যদি ভুল বলেও থাকি, সঠিক ভাষার প্রয়োগে জানাবেন)

আমাদের মেয়েদের একটা কমন প্রব্লেম হল ক্যালসিয়াম এর ঘাটতি। আমি নিজে ছোটবেলা থেকে এর সাথে যুদ্ধ করে বড় হচ্ছি৷ সেদিন আমার আম্মুকে জিজ্ঞেস করে শুনলাম সে ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট খায় রাতে৷ দয়া করে কেউ এই ভুল করবেন না। ভিটামিন সি, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম এগুলো রাতে খাবেন না৷ এতে শরীরে মিউকাস তৈরি হয়, কনস্টিপেশন হয়।
ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট খাবার আগে আপনাকে এটা জানতে হবে যে আপনার আসলেই ক্যালসিয়াম এর ঘাটতি আছে নাকি এক্সট্রা ক্যালসিয়াম জমে আছে শরীরে? ক্যালসিয়াম এর শুধু ঘাটতিই হয় না, শরীরে বিভিন্ন জায়গায় ক্যালসিয়াম জমে যেতে পারে। ক্যালসিয়াম এমন একটা উপাদান যে নিজেই জানেনা তাকে শরীরে কোথায় যেতে হবে৷ এজন্য ক্যালসিয়াম কে দিক নির্দেশনা দিতে ক্যালসিয়াম এর সাথে খেতে হবে ভিটামিন k ।
এখন কথা হচ্ছে কিভাবে বুঝবেন আপনার শরীরে ক্যালসিয়াম জমে আছে --
হাতের আঙুল ভাল করে খেয়াল করুন বাকা হয়ে গেছে কি না,
আঙুল ফোটানোর ইচ্ছে করে কিনা সবসময়,
ঘাড়ে ব্যাথা হয় কি না,
বার বার ঘাড় এদিক ওদিক ঘোরাতে ইচ্ছা করে কি না,
উঠতে বসতে বা কোন কাজ করতে হাড় এ মটমট শব্দ হয় কি না
এবং ব্যাথা তো অবশ্যই থাকবে! এই সমস্যার সমাধান ও ভিটামিন-কে।
আরেকজনের কথা না বললেই নয়! তিনি হলেন ভিটামিন-ডি। কারো যদি ভিটামিন ডি এর ঘাটতি থাকে তবে সে সারাজীবন চেস্টা করলেও ক্যালসিয়াম এর সমস্যা থেকে মুক্তি পাবে না। তাই আগে পরীক্ষা করে দেখতে হবে ভিটামিন ডি এর ঘাটতি আছে কি না। প্রতিদিন ১ ঘন্টা রোদে বসে থাকুন এবং শরীরে ম্যাক্সিমাম খোলা স্থানে রোদ লাগান ইনশাআল্লাহ ভিটামিন-ডি এর অভাব অনেকটাই পুরন হয়ে যাবে।
চেষ্টা করবেন ক্যালসিয়াম, ভিটামিন-ডি,ভিটামিন-কে ইত্যাদি ন্যাচারাল খাবার থেকে নিতে৷ গুগলে একটু সার্চ করলেই পেয়ে যাবেন খাবারের লিস্ট। আর্টিফিশিয়াল যে ক্যালসিয়াম বা ভিটামিন ট্যাবলেট আমরা খাচ্ছি সেগুলো, রোগ খুব বেশি না হলে খাবেন না৷
এই তিন ট্যাবলেট এর ই নেবার সবচেয়ে ভাল সময় ব্রেকফাস্ট এর পরে কারন বাকি দিনটিতে আপনি হাটাচলা, কাজকর্ম করবেন আর এই খাদ্য উপাদন গুলো আপনার সারা শরীরে পৌঁছে যাবে৷ স্টোরেজ এর ভয় থাকবে না৷
অন্ধ হবেন না৷ অন্ধ ভাবে ডাক্তারের লিখে দেয়া ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট দিনে দুটি করে গিলবেন না৷ বা হাটু কোমর ব্যাথা হলেই ক্যালসিয়াম এর অভাব হয়েছে ভেবে নিজে পন্ডিতি করে ঔষধ কিনে গিলবেন না। শোবার আগে ক্যালসিয়াম ভুলেও খাবেন না। আগে নিজে বুঝুন আপনার সমস্যা কোথায়৷ আসলেই সমস্যা আছে কি না। নিজে সচেতন হোন। আপনার বাড়ির বয়স্ক মহিলাদের দিকে খেয়াল রাখুন৷ তাদেরও সচেতন করুন। আপনার সমস্যা গুলো ন্যাচারাল ওয়ে তে সমাধান করার চেষ্টা করুন। সুস্থ থাকুন 🙂
_সাজিয়া শাহরিন

*




4 Comments 308 Views
Comment

© FriendsDiary.NeT 2009- 2021