FriendsDiary.NeT | Friends| Inbox | Chat
Home»Archive»

🎬 Kᴀɪᴛʜɪ

🎬 Kᴀɪᴛʜɪ

*



সন্ধার পরে গল্পের শুরু আর শেষ একেবারে ভোরে। না; এটা কোনো হরর গল্প না, একটি পুরো রাতের অভিযানের কাহিনি। বলছিলাম—

এটা শুধু আমার টপিক এর জন্য দেয়া মুভিটা ডাউনলোড করে দেখতে বসে পরুন ভালো লাগা ছাড়া আর কিছু বলতে হবে না 👍

🎬 Kᴀɪᴛʜɪ (2019)
[IMDb- 8.5/10
Google liked- 94%
PR- 8/10]

✅Genres- Adventure | Action | Thriller
🚻Cast- Karthi, Narain &..

🔛 #contain_spoilers
[[Kaithi মানে কয়েদী। আর এই কয়েদীটি হলো ডিল্লি(কার্থি) নামের এক লোক, যে-কিনা খুনের দায়ে ১০ বছর কারাদন্ডের পর মুক্তি পেয়ে তার মেয়ের সাথে সকালেই দেখা করতে যাচ্ছে, যে মেয়েকে জন্মের পর কোনোদিন দেখার সুযোগ পায়নি সে। কিন্তু অন্য স্টেটে পথিমধ্যে এক পুলিশ কনস্টেবলের সাথে বিতর্কে জড়িয়ে আটকা পড়ে সে।

এদিকে আশেপাশের সকল থানার পুলিশরা মিলে কমিশনারের বাড়িতে ড্রিংকস পার্টি দিচ্ছিলো কিন্তু কেউ একজন ড্রিংকসের সাথে অজ্ঞান হওয়ার ঔষধ মিশিয়ে দিয়েছিলো।
এখন সকল অজ্ঞান পুলিশদের ট্রাকে ভরে ৮০ কিলোমিটার দূরে একটি গন্তব্যে নিয়ে যাওয়ার জন্য জোর করে দায়িত্ব দেওয়া হয় ডিল্লিকে।

ঐদিন এখানের কয়েকজন পুলিশ মিলে ৯০০ কিলো ড্রাগস আটক করে থানার গুদামঘরে রেখে দেয়, যার মূল্য ৮০০ কোটির চেয়েও বেশি হবে।
এখন এই ড্রাগসের সাথে জড়িতরা পুলিশদেরকে মেরে, থানা ভেঙে তাদের ড্রাগসগুলো উদ্ধার করার উদ্দেশ্যে এই রাতেই কয়েকটি গ্রুপেকে নামিয়ে দেয় অপারেশনে।

নিজের অজান্তেই, অনিচ্ছাকৃতভাবে এই জামেলায় জড়িয়ে পড়ে ডিল্লি।
এখন এই রাতে কি হতে যাচ্ছে, পুলিশদেরকে কি উদ্ধার করতে পারবে ডিল্লি নাকি নিজেই.., তার জীবনে কি আর মেয়েকে দেখা হবেনা,...? অর্থাৎ থ্রিলিং এই অভিযানের প্রত্যেকটা মূহুর্ত উপভোগ করতে এবং এর লাস্ট ফলাফল কি হতে যাচ্ছে তা জানার জন্য অবশ্যই আপনাকে দেখে নিতে হবে মুভিটি।]]

🆓
এটির মূল কাহিনি ১৯৭৬ সালের হলিউড মুভি Assault on Precinct 13 হতে অনুপ্রাণিত।
আসলে প্লট এতোটা স্ট্রং লাগেনি আমার কাছে তবে স্টোরির স্ক্রীণপ্লে & প্রেজেন্টেশনটা ভালো ছিলো, যার ডিরেক্সনে ছিলো লোকেশ কানাগরাজ।
মুভির বিজিএমটাও ভালো ছিলো।

তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে চমৎকার ছিলো কার্থির পারফরম্যান্স। দশবছর জেলখাটা একজন ব্যক্তির এমন লুক & একটু ফ্যাট চমৎকার মানিয়েছে কিন্তু অপরপক্ষে এই ফিটনেসটা দিয়ে কিন্তু এক্সন সিকোয়েন্স মানায়না, সে বিষয়টা পরিচালকের একটু মাথায় রাখার দরকার ছিলো বলে আমি মনে করি।

যেটা বলছিলাম, একাই দশ-বিশ জনকে মারার হিরোয়িজমটা মুভিতে অন্য কৌশলে এড়িয়ে গেলে মুভির কোয়ালিটিটা আরও সুন্দর দেখাতো বলেও আমি মনে করি।

প্লট নিয়ে যেটা বলছিলাম, বলবো মুভির শেষটা শুরুর মতো চমৎকার হয়নি। তবে খারাপ বলা যাবে না!

তবে মুভিতে পুলিশদের জন্য চমৎকার সব ম্যাসেজ ছিলো। একজন কনস্টেবল বলছিলো– “যখন তিনজন কনস্টেবল নাইট ডিউটির সময় মার্ডার হয়েছিল তখন কোনো বড় অফিসার ফোনই ধরেনি। আমরা কেনো বিপদে পড়তে যাবো, যা হওয়ার হবে, অফিসাররাই প্রশ্নবিদ্ধ হবে।”
তাছাড়া গুরুত্বপূর্ণ রাতে এনজয় পার্টির ফল।... ওভার মুভিটি পুলিশদের জন্য একটা ম্যাসেজ।

সাউথ & একশন লাভারদের জন্য A Must Watch.


*




0 Comments 127 Views
Comment

© FriendsDiary.NeT 2009- 2021